পাতা:চয়নিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৩০৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


W) ev, চয়নিক অমাবস্ত অণধার দুই পহরে শুধাই আমি তাহার কাছে গিয়ে “ওগো তুমি চলেছ কার তরে \ প্রদীপখানি বুকের কাছে নিয়ে, আমার ঘরে হয়নি আলো জালা দেউটি তব হেথায় রাখো বালা ।" অন্ধকারে দুটি নয়ন কালে ক্ষণেক মোরে দেখলে চেয়ে তবে, সে কহিল, "এনেছি এই আলো দীপালিতে সাজিয়ে দিতে হবে ।” চেয়ে দেখি লক্ষ দীপের সনে দীপখানি তার জলে অকারণে ॥ — খেয়। কৃপণ ভিক্ষণ ক’রে ফিরতেছিলেম গ্রামের পথে পথে । তুমি তখন চলেছিলে তোমার স্বর্ণরথে । অপূর্ব এক স্বপ্নসম লাগতেছিল চক্ষে মম কী বিচিত্র শোভা তোমার কী বিচিত্র সাজ । আমি মনে ভাবতেছিলেম এ কোন মহারাজ । ভক্ষণে রাত পোহাল ভেবেছিলেম তবে, আজ আমারে দ্বারে স্বারে ফিরতে নাহি হবে । বাহির হোতে নাহি হোতে কাহার দেখা পেলেম পথে, চলিতে রথ ধন ধান্ত ছড়াবে দুইধারে— মুঠা মুঠ কুড়িয়ে নেব, নেব ভারে ভারে।