পাতা:চয়নিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৩০৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চয়নিক T ○o n সহসা রথ থেমে গেল আমার কাছে এসে, আমার মুখ পানে চেয়ে নামলে তুমি হেসে । দেখে মুখের প্রসন্নতা জুড়িয়ে গেল সকল ব্যথা ; হেনকালে কিসের লাগি তুমি অকস্মাৎ “আমায় কিছু দাও গো” বলে বাড়িয়ে দিলে হাত ॥ এ কী কথা রাজাধিরাজ, “আমায় দাও গো কিছু।” শুনে ক্ষণকালের তরে রৈস্থ মাথা নিচু । তোমার কী বা অভাব আছে ভিখারি ভিক্ষুকের কাছে । এ কেবল কৌতুকের বশে আমায় প্রবঞ্চনা। বুলি হতে দিলেম তুলে একটি ছোটো কণা ৷ পাত্ৰখানি ঘরে এনে উজাড় করি—এ কী, ভিক্ষণমাঝে একটি ছোটো সোনার কণা দেখি । দিলেম যা রাজ-ভিখারিরে স্বর্ণ হয়ে এল ফিরে, তখন কাদি চোখের জলে দুটি নয়ন ভ'রে— তোমায় কেন দিইনি আমার সকল শূন্ত করে । ( :७४२ ? ) — খেয়া | ফুল ফোটানে৷ তোরা কেউ পারবি নে গো পারবি নে ফুল ফোটাতে । যতই বলিস, যতই করিস, যতই তারে তুলে ধরিস, ব্যগ্র হয়ে রজনী দিন আঘাত করিস বোটাতে, তোরা কেউ পারবি নে গো পারবি নে ফুল ফোটাতে ॥