পাতা:চয়নিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৩১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


छग्ननिक ১৩ প্রাণ মরিতে চাহি না আমি হুন্দর ভুবনে, মানবের মাঝে আমি বাচিবারে চাই । এই স্বর্থকরে এই পুম্পিত কাননে জীবস্ত হৃদয় মাঝে যেন স্থান পাই । ধরায় প্রাণের খেলা চির-তরঙ্গিত, বিরহ মিলন কত হাসি-অশ্রময়— মানবের মুখে দুঃখে গাথিয়া সংগীত যেন গো রচিতে পারি অমর-আলয় । তা যদি না পারি তবে বাচি যত কাল তোমাদেরি মাঝখানে লভি যেন ঠাই, তোমরা তুলিবে ব’লে সকাল বিকাল নব নব সংগীতের কুস্বম ফুটাই । হাসি মুখে নিয়ে স্কুল তার পরে, হায়, ফেলে দিয়ো ফুল, যদি সে ফুল শুকায় । ( ১২৯১ ? ) —কড়ি ও কোমল । কাঙালিনী আনন্দময়ীর আগমনে, আনন্দে গিয়েছে দেশ ছেয়ে হেরো ওই ধনীর দুয়ারে দাড়াইয়া কাঙালিনী মেয়ে । বাজিতেছে উৎসবের বঁাশি, কানে তাই পশিতেছে আসি',