পাতা:চয়নিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৩২১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চয়নিক৷ ” \రి వి বাহির পানে তাকায় ন}-যে কেউ, দেখে না যে বান ডেকেছে জোয়ার জলে উঠছে প্রবল ঢেউ । চলতে ওরা চায় না মাটির ছেলে মাটির পরে চরণ ফেলে ফেলে, আছে অচল আসনখানা মেলে’ যে যার আপন উচ্চ বঁাশের মাচায়, আয় অশাস্ত, আয় রে আমার কাচা ॥ তোরে হেথায় করবে সবাই মানা, হঠাৎ আলো দেখবে যখন ভাববে এ কী বিষম কা গুথান । ংঘাতে তোর উঠবে ওরা রেগে, শয়ন ছেড়ে আসবে ছুটে বেগে, সেই স্থযোগে ঘুমের থেকে জেগে লাগবে লড়াই মিথ্যা এবং সর্ণচায় । আয় প্রচণ্ড, আয় রে আমার র্কাচা ॥ শিকল-দেবীর ঐ-যে পূজাবেদী চিরকাল কি রইবে খাড়া । পাগলামি তুই আয় রে দুয়ার ভেদি । ঝড়ের মাতন, বিজয়-কেতন নেড়ে অট্টহাস্তে আকাশখানা ফেড়ে, ভোলানাথের ঝোলাকুলি ঝেড়ে ভুলগুলো সব আন রে বাছা-বাছা । অায় প্রমত্ত অায় রে আমার কাচা ॥