পাতা:চয়নিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৩২৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চয়নিক ما جكا মোর চক্ষে এ নিখিলে দিকে দিকে তুমিই লিখিলে রূপের তুলিকা ধরি’ রসের মুরতি । সে-প্রভাতে তুমিই তো ছিলে এ বিশ্বের বাণী মূতিমতী । একসাথে পথে যেতে যেতে রজনীর আড়ালেতে তুমি গেলে থামি’ । তার পরে আমি কত দুঃখে স্বপে রাত্রিদিন চলেছি সম্মুখে । চলেছে জোয়ার ভাটা আলোকে আঁধারে আকাশ-পাথারে ; f পথের দু-ধারে চলেছে ফুলের দল নীরব চরণে বরনে বরনে ; সহস্রধারায় ছোটে দুরন্ত জীবন-নিঝরিণী মরণের বাজায়ে কিঙ্কিণী । অজানার স্বরে চলিয়াছি দূর হতে দূরে, মেতেছি পথের প্রেমে । তুমি পথ হতে নেমে যেখানে দাড়ালে সেখানেই আছ থেমে । এই তৃণ, এই ধূলি—ওই তারা, গুই শশী-রবি সবার আড়ালে তুমি ছবি, তুমি শুধু ছবি ।