পাতা:চয়নিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৩৫৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


రి(b চয়নিক পঞ্চাননকে পাওয়া গেছে অনেক দিনের খোজে, জানো না কি মস্ত কুলীন ও-যে । সমাজে তো উঠতে হবে সেটা কি কেউ ভাবো । ওকে ছাড়লে পাত্র কোথায় পাব ।” মা বললে, “কেন ঐ-যে চাটুজ্জেদের পুলিন, নাই বা হোলো কুলীন,— দেখতে যেমন তেমনি স্বভাবখানি, পাস ক’রে ফের পেয়েছে জলপানি, সোনার টুকরো ছেলে । এক-পাড়াতে থাকে ওরা—ওরি সঙ্গে হেসে খেলে মেয়ে আমার মানুষ হোলো ; ওকে যদি বলি আমি আজক্ট একগনি হয় রাজি ।” বাপ বললে, “থামো, অারে অারে রামো: | ওরা আছে সমাজের সব তলায়, বামুন কি হয় পৈতে দিলেই গলায় । দেপতে শুনতে ভালো হোলেই পাত্র হোলে । রাধে স্ট্রীবৃদ্ধি কি শাস্ত্রে বলে সাধে ।” যেদিন ওরা গিনি দিয়ে দেখলে কনের মুখ সেদিন থেকে মঞ্জুলিকার বুক প্রতিপলের গোপন কাটায় হোলো রক্তে মাখা । মায়ের স্নেহ অন্তর্বামী, তার কাছে তে রয় না কিছুই ঢাকা ; মায়ের ব্যথা মেয়ের ব্যথা চলতে খেতে শুতে, ঘরের আকাশ প্রতিক্ষণে হানছে যেন বেদনা-বিদ্যুতে ।