পাতা:চয়নিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৩৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


R • চয়নিক যত ফুল দেয় ধরা তত ফুল পায় প্রতিদিন– “ যত প্রাণ ফুটাইছে ততই বাড়িয়া উঠে প্ৰাণ । যাহা আছে তাই দিয়ে ধনী হয়ে উঠে দীনহীন, । অসীমে জগতে এ কী পিরিতির আদান-প্রদান । কাহারে পুজিছে ধরা হামল যেীবন উপহারে, নিমেষে নিমেষে তাই ফিরে পায় নবীন যৌবন । প্রেমে টেনে আনে প্রেম, সে প্রেমের পাথার কোথা রে । প্রাণ দিলে প্রাণ আসে,—কোথা সেই অনস্ত জীবন । ক্ষুদ্র আপনারে দিলে, কোথা পাই অসীম আপন, সে কি ওই প্রাণহীন প্রেমহীন অন্ধ অন্ধকারে । ( ১২১৩ ? ) —কড়ি ও কোমল ভুল ভাঙা বুঝেছি আমার নিশার স্বপন হয়েছে ভোর } মালা ছিল, তার ফুলগুলি গেছে, রয়েছে ডোর । নেই আর সেই চুপি-চুপি চাওয়া, ধীরে কাছে এসে ফিরে ফিরে যাওয়া, চেয়ে আছে আঁখি ; নাই ও আঁথিতে প্রেমের ঘোর । বাহুলতা শুধু বন্ধনপাশ বাহুতে মোর ।