পাতা:চয়নিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৩৮১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চয়নিক অঞ্চল হতে ঝরে বায়ুস্রোতে সে-দিনের পরিমল ৷ মনে আছে সে কি সব কাজ, সখি, ভুলায়েছ বারে বারে । বন্ধ দুয়ার খুলেছ আমার কঙ্কণ-ঝংকারে । ইশারা তোমার বাতাসে বাতাসে ভেসে ঘুরে ঘুরে যেত মোর বাতায়নে এসে, কখনো আমার নব মুকুলের বেশে, কতু নব মেঘ-ভারে । চকিতে চকিতে চল-চাহনিতে ভুলায়েছ বারে বারে ॥ নদী কূলে কুলে কল্লোল তুলে’ গিয়েছিলে ডেকে ডেকে । বনপথে অসি’ করিতে উদাসী কেতকীর রেণু মেখে । বর্ষা-শেষের গগন কোনায় কোনায়, সন্ধ্যা-মেঘের পুঞ্জ সোনায় সোনায় নির্জন খনে কখন অন্তমনায় ছু য়ে গেছ থেকে থেকে । কখনো হাসিতে কখনো বাশিতে গিয়েছিলে ডেকে ডেকে ॥ কী লক্ষ্য নিয়ে এসেছ এ বেলা কাজের কক্ষ-কোণে । সাখী খুজিতে কি ফিরিছ একেলা তব খেলা প্রাঙ্গণে । নিয়ে যাবে মোরে নীলাম্বরের তলে ঘর-ছাড়া যত দিশা-হারাদের দলে,