পাতা:চয়নিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৩৮৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


कग्ननेिक তাই তো চাঞ্চল্য জাগে মাটির গভীর অন্ধকারে, রোমাঞ্চিত তৃণে ধরণী ক্রন্দিয়া উঠে, প্রাণম্পন্দ ছুটে চারিধারে বিপিনে বিপিনে । তাই তো গোপন ধন খুজে পায় অকিঞ্চন ধূলি নিরুদ্ধ ভাণ্ডারে বর্ণে গন্ধে রূপে রসে আপনার দৈন্ত যায় ভুলি’ পত্রপুষ্প-ভারে । দেবতার প্রার্থনাম কাপণ্যের বদ্ধ মুষ্টি খুলে, রিক্ততারে টুটি’ রহস্ত-সমুদ্র-তল উন্মথিয় উঠে উপকূলে রত্ন মুঠি মুঠি ৷ তুমি সে আকাশ-ভ্রষ্ট প্রবাসী আলোক, হে কল্যাণী, দেবতার দূতী ৷ মর্ত্যের গৃহের প্রাস্তে বহিয়া এনেছে তব বাণী স্বর্গের আকুতি । ভঙ্গুর মাটির ভাণ্ডে গুপ্ত আছে যে অমৃত-বারি মৃত্যুর আড়ালে, · দেবতার হয়ে হেথা তাহারি সন্ধানে তুমি নারী, দু’বাহু বাড়ালে । তাই তো কবির চিত্তে করলোকে টুটিল অর্গল বেদনার বেগে, মানস-তরঙ্গ-তলে বাণীর সংগীত-শতদল নেচে ওঠে জেগে । সুপ্তির তিমির বক্ষ দীর্ণ করে তেজস্বী তাপস দীপ্তির কৃপাণে, বীরের দক্ষিণ হস্ত মুক্তিমন্ত্রে বঙ্গ করে বশ, আসত্যেরে হানে ।