পাতা:চয়নিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৪২৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চয়নিক 8.6% মনে পড়িল কি ঘন কালে এলোচুলে অগুরু ধূপের গন্ধ । শিখি-পুচ্ছের পাখা সাথে জুলে’ জুলে’ কাকন-দোলন ছন্দ । মনে পড়িল কি নীল নদীজলে ঘন শ্রাবণের ছায়া ছলছলে, মিলি মিলি সেই জল-কলকলে কলালাপ মুছমন্দ ; স্থকিত পায়ের চলা দ্বিধাহত, ভীরু নয়নের পল্লব নত, না বলা কথার অভিাসের মতো নীলাম্বরের প্রাস্ত । মনে পড়িছে কি কাথে তুলে ঝারি তরু তলে তলে ঢেলে চলে বারি, সেচন-শিথিল বাহু দুটি তারি ব্যথায় আলসে ক্লাস্ত । ওগো সন্ন্যাসী, পথ যায় ভাসি’ ঝর বার ধারাজলে— তমাল বনের শু্যামল তিমির তলে । স্থ্যলোকে ভূলোকে দূরে দূরে বলাবলি চির-বিরহের কথা, বিরহিণী তার নত আঁখি ছলছলি’ ৷ নীপ-অঞ্জলি রচে বসি গৃহকোণে ঢেলে ঢেলে দেয় তোমারে স্মরিয়া মনে, ঢেলে দেয় ব্যাকুলত । কতু বাতায়নে অকারণে বেলা বাহি’ । स्यांफूत्व नब्रट्न छू-शरङ चेॉळण शेंदन ।