পাতা:চয়নিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৪৫২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


848 छब्रनिक পায় কিছু পানীয় ;— পান সারা হোলে পিছিয়ে পড়ে অন্ধকারে ; চাকার তলায় ভাঙা পাত্র ধুলায় যায় গুড়িয়ে । তার পিছনে পিছনে নতুন পাত্র নিয়ে যে আসে ছুটে, পায় নতুন রস, একই তার নাম, কিন্তু সে বুঝি আর-একজন । একদিন ছিলেম বালক । কয়েকটি জন্মদিনের ছাদের মধ্যে সেই যে-লোকটার মূর্তি হয়েছিল গড়া তোমরা তাকে কেউ জানো না । সে সত্য ছিল যাদের জানার মধ্যে কেউ নেই তা’র । সেই বালক না আছে আপন স্বরূপে না আছে কারো স্মৃতিতে । সে গেছে চলে তার ছোটো সংসারটাকে নিয়ে ; তার সেদিনকার কাল্লা-হাসির প্রতিধ্বনি আসে না কোনো হাওয়ায় । তার ভাঙা খেলনার টুকরোগুলোও দেখিনে ধুলোর পরে। সেদিন জীবনের ছোটো গবাক্ষের কাছে সে বসে থাকত বাইরের দিকে চেয়ে । তার বিশ্ব ছিল সেইটুকু ফাকের বেষ্টনীর মধ্যে ।