পাতা:চয়নিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৭৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চয়নিক স্বপ্নমঙ্গলের কথা অমৃতসমান, গোঁড়ানন্দ কবি ভনে, শুনে পুণ্যবান । স্বপ্ন শুনি’ মেচ্ছমুখ রাঙা টকটকে, আগুন ছুটিতে চায় মুখে আর চোগে । হানিয়া দক্ষিণ মুষ্টি বাম করতলে “ডেকে এনে পরিহাস ।” রেগেমেগে বলে - ফরাসি পণ্ডিত ছিল, হাস্তোজ্জল মুখে কহিল নোয়ায়ে মাথা, হস্ত রাখি’ বুকে,— “স্বপ্ন যাহ! শুনিলাম রাজযোগ্য বটে ; হেন স্বপ্ন সকলের অদুষ্টে না ঘটে । কিন্তু তবু স্বপ্ন ওটা করি অনুমান যদিও রাজার শিরে পেয়েছিল স্থান । অর্থ চাই রাজকোষে আছে ভূfর ভূরি, রাজস্বপ্নে অর্থ নাই ষত মাথা খুড়ি । নাই অর্থ কিন্তু তবু কহি অকপট শুনিতে কী মিষ্ট আহা—হিং টিং ছট ।” স্বপ্নমঙ্গলের কথা অমৃতসমান, গৌড়ানন্দ কবি ভনে, শুনে পুণ্যবান । শুনিয়া সভাস্থ সবে করে ধিক ধিকৃ— কোথাকার গণ্ডমূখ পাষণ্ড নাস্তিক । স্বপ্ন শুধু স্বপ্নমাত্র মস্তিষ্কবিকার, এ কথা কেমন ক'রে করিব স্বীকার । জগৎ-বিখ্যাত মোরা “ধম প্রাণ* জাতি, স্বপ্ন উড়াইয়া দিবে।—দুপুরে ডাকাতি । হবুচন্দ্র রাজা কহে পাকালিয়া চোখ— “গৰুচন্দ্র, এদের উচিত শিক্ষা হোক । や>