পাতা:চিঠিপত্র (চতুর্থ খণ্ড)-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/২৩৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


હૈ স্বারিকানাথ ঠাকুরের গলি কলিকাতা যে ছিল মোর ছেলেমানুষ হারিয়ে গেল কোথা, পথের ভুলে পেরিয়েছিল মরা নদীর সোঁতা। কোন বুড়োমির পাচিলে তায় রাখল আড়াল করে, জড়িয়ে তাকে দিল স্বপন-ঘোরে। হঠাৎ তোমার জন্মদিনের আঘাত লাগল দ্বারে ডাক দিল সে কোন সেকালের ক্ষ্যাপী বলিকটারে । সেই যে ছেলে-আমি ডাক শুনে সে এগিয়ে এসে হঠাৎ গেল থামি । বললে, শোনো, ওগো কিশোরিক, রবীন্দ্রনাথ কুষ্ঠিতে যার লিখা নামটা সতী, সত্য শুধু তারিখটা মাত্তর, তাই বলে তো বয়সটা তার নয়কো ছিয়াত্তর । কঁচা প্রাণের দৃষ্টি যে তার জগৎটা তার কাচ বাধে নি তায় বিষয়লোভের খাচা । পায় যদি সে আশা তোমার লীলার আঙিনাতে বাধবে সে তার বাসা ।