পাতা:চিঠিপত্র (দ্বাদশ খণ্ড)-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১৪৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


এপথ থেকে সম্পূর্ণ ভ্ৰষ্টতা আর ঘটবে না, ক্ষণকালের জন্যে ঘটলেও নিজেকে উদ্ধার করতে পারব । কিছুদিন থেকে একটা বিশ্বাস আমার মনে দৃঢ় হয়েছে যে, এখান থেকেই আমাদের পাথেয় নিয়ে যেতে হয়— মরুপথের পারে যাবার জন্যে জল নিয়ে যাবার মতো,— নানা খুচরো আঘাতের ধাক্কায় সেই জল সঞ্চয় যদি মরুবালুর উপরে ক্ষয় করতে থাকি তাহলে তার কঠোর দায়িত্ব আছে। কথাটা পুরোনো কিন্তু যেদিন তার সত্যতার পুরো খবরটা মনে আসে সেদিন মনে হয় একথাটা আগে কোনোদিন শুনি নি। আশা কবি সময় থাকতেই শুনতে পেয়েছি । ইতি ২১ নবেম্বর ১৯২৯ আপনাদেব শ্রীরবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ২৮ নভেম্বর ১৯২৯ শ্রদ্ধাস্পদেষু কোরীয়-রবীন্দ্রসংবাদ আপনাকে পাঠানো হয়েচে । আপনার আজকের পত্রে তার উল্লেখ দেখলুম না । বোধকরি রেজেক্টি ডাকের গতি বিলম্বিত । .. কে দিয়েচেন আমার লেখা তর্জমা করে দিতে । ফলের আশা ত্যাগ করে যদি সম্পূর্ণ নিষ্কামভাবে দিয়ে থাকেন ه است :