পাতা:চিঠিপত্র (দ্বাদশ খণ্ড)-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৫৫১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


উত্তর তাহারা হিন্দুস্থানী ছেলেমেয়েদের মত ইংরেজিতে দিবে, অন্যান্য বিষয়ের প্রশ্নের উত্তর তাহারা বাংলায় দিবে। কলিকাতা বিশ্ববিদ্যালয় নানা ভাষার ও নানা ভাষায় পরীক্ষা করেন ; পরীক্ষার্থী অল্প হইলেও প্রশ্নপত্র রচনা করান। অবাঙ্গালীদের প্রতি বঙ্গে এ বিষয়ে যে ন্তায্য ও সহাহভূতিপূর্ণ ব্যবহার করা হয়, বাঙালীরা বাংলার বাইরে স্থায়ী বাসিন্দা হইলে যদি সেইরূপ ন্যায্য ও সহানুভূতিপূর্ণ ব্যবহার আশা করে তাহা অস্বাভাবিক নহে ] বাঙালী ছেলেমেয়েদের জন্য আমরা যে ন্যায্য সুবিধাটুকু চাহিলাম, যুক্ত প্রদেশের কংগ্রেসী মন্ত্রীরা যদি তাহা ও দিতে নারাজ হয়, তাহা হইলে অন্য রকম একটি স্ববিধা তাহাদের এডুকেশন বোর্ডের একটি নিয়ম অনুসারে চাহিতে পারা যায় । এই নিয়মে আছে যে বোর্ডের চেয়ারম্যান বা তাহার নামিত কোন ব্যক্তি ( “his nominee" ) ইচ্ছা করিলে কোন পরীক্ষার্থীকে পরীক্ষার সকল বিষয়েরই উত্তর ইংরেজীতে দিবার অনুমতি দিতে পরিবেন । এই বৈকল্পিক নিয়মটি, যে-সব পরীক্ষার্থীর মাতৃভাষা ইংরেজী, তাহাদের সুবিধার নিমিত্ত করা হইয়া থাকিবে । তাহাদের সম্বন্ধে যে স্থবিবেচনা দেখানো হইয়াছে, বাঙালী ছেলেমেয়েদের সম্বন্ধে সেই স্ববিবেচনা করা অস্বাভাবিক বা অন্যায় নহে। এইজন্ত আমরা বলি, ‘বাঙালী ছেলেমেয়েদিগকে যদি উত্তর বাংলাতে লিখিবার অতুমতি না-দেওয়া হয়, তাহা হইলে ইংরেজীতেই উত্তর দিবার অনুমতি দেওয়া হউক ।' এবং এই অনুমতি প্রদান কাহার ও মর্জিসাপেক্ষ না রাখিয়া এই নিয়ম অনুসারে করিবার ব্যবস্থা হউক যে, হিন্দুস্থানী যাহাঁদের মাতৃভাষা নহে, সেইরূপ পরীক্ষার্থীরা ইচ্ছা! ● >b"