পাতা:চিঠিপত্র (দ্বাদশ খণ্ড)-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৫৮৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বিজ্ঞপ্তি রবীন্দ্রনাথ-রামানন্দ পত্রাবলী সংকলন ও সম্পাদনার কাজ অfরস্ত করেন প্রয়াত পুলিনবিহারী সেন । এই কাজে তার সহায়ক ছিলেন শ্ৰীশুভেন্দুশেখর মুখোপাধ্যায় ও শ্রমবিমল লাহিড়ী। এই গ্রন্থসম্পাদন সম্পূর্ণ করা তার পক্ষে সম্ভব হয় নি। তখন ১৪১টি পত্র মুত্রণের কাজ শেষ হয়েছে। অত:পর ১৯৭৭-এর প্রথম দিকে ঐসত্যেন্দ্রনাথ রায় এবং ১৯৭৮-এর প্রথম দিকে ঐ ভবতোষ দত্তের উপর এই ভার ন্যস্ত হয় । প্রবাসী-সম্পাদক রামানন্দ চট্টোপাধ্যায়কে লেখা পত্রগুলিতে প্রসঙ্গের গুরুত্ব বিবেচনা করে এই খণ্ডের গ্রন্থপরিচয় যথাসম্ভব সম্পূর্ণ করবার চেষ্টা করা হয়েছে। মূলপত্রের সঙ্গে মেলানো, তথ্যাদি সংগ্রহ, সর্বোপরি শান্তিনিকেতন প্রেসের সীমাবদ্ধ সামর্থোর জন্য গ্রন্থ প্রকাশে বিলম্ব হল । এই খণ্ডে সংকলিত পত্রগুলির প্রাপ্তিস্থল স্বতন্ত্রভাবে উল্লিখিত হল । রবীন্দ্রনাথের লেখা চিঠিগুলি রামানন্দ তার দুই কন্যা সীতাদেবী ও শাস্তাদেবীকে দুই ভাগে ভাগ করে দেন। সীতাদেবী রবীন্দ্রশতবর্ষপূর্তির প্রাক্কালে তার কাছে সংরক্ষিত চিঠি বিশ্বভারতীকে দান করেন । প্রসঙ্গত উল্লেখযোগ্য, প্রবাসী পত্রে প্রকাশিত জীবনস্মৃতির পাণ্ডুলিপিও তিনি বিশ্বভারতীকে দান করেছিলেন । শাস্তানেৰী তার সংরক্ষিত পত্রগুলি দান করেন রবীন্দ্রভারতীকে সীতাদেবীর নিকট থেকে রবীন্দ্রভবনের জন্ত চিঠিপত্র এবং পাণ্ডুলিপি সংগ্রহের কৃতিত্ব পুলিনবিহার সেনের। রামানন্দের পরিবারবর্গের কাছে লিখিত মূল পত্রগুলি রবীন্দ্রভবনে সংরক্ষিত। এ ছাড়া আরো চিঠি থাকা সম্ভব । বর্তমান সংকলন মুদ্রণের কাজ যখন অনেকদূর অগ্রসর হয়েছে তখন (? (? 3)