পাতা:চিঠিপত্র (প্রথম খণ্ড)-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১২৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


কাকিম, আমার কথা তোমাকে বিশ্বাস করতে হবে না। বোলতার কথাই শ্বিাস কর । কিন্তু আমি বাপু সত্যি কথা বলছি শোন। আমি বোলতাকে চিঠি দেখালুম, তিনি বল্লেন আমি এর মাঝে মাঝে টকে করি দাও। আমি কিছুতেই রাজি হচ্ছিলুম না। তবে একজন মানুষ নেহাৎ পেড়াপীড়ি করলে আর কি করি বল। লিখতে দিলুম, আর বলুম কিছু বানিয়ে লিখে না। তিনি বল্লেন তবে আর কি হল বেশ একটু মজা হবে সেই তো ভাল । কাকিম কি লেখেন দেখা যাবে বলে তিনি বানিয়ে লিখে দিলেন । আমি জানতুম তুমি আমার কথা বিশ্বাস করবে না। বোলতার লেখাটুকু দেখেই বিশ্বাস করবে ভেবেই আমি তাকে লিখতে বারণ করেছিলুম। আমি সত্যি কথা বল্পেও আমার কথা বিশ্বাস হয় না। তা বাপু বিশ্বাস করবার দরকার নাই। আমার কপাল মন্দ তার আর কি করব বল । কেউ বিশ্বাস করেন না কেউ । চিঠি লেখেন না ইত্যাদি । বোলতার রুমাল রোজ ভিজে থাকে বটে। আমি জানতুম না যে তিনি র্কাদেন । তোমার চিঠিতে দেখলুম, এবার থেকে তাকে নানা কথা বলে, পাখী দেখিয়ে ভুলিয়ে ভালিয়ে রাখবো। আজ তোমার চিঠিটা যখন বোলতাকে শোনাচ্ছিলাম তখন তার মুখের দিকে চেয়ে দেখি চোখদুটো জলে পুরে এসেছে। দেখে তাড়াতাড়ি চিঠিটা মুড়ে ফেলুম। রবিকাকার বাদাম ছাড়িয়ে দিতে হয়। এখন সময় হয়েছে, কাজ সেরে সুরে এসে আবার লিখতে বসবো । ভাই কাজ কর্ম সারা হল সন্ধ্যেও হয়ে এল। সূর্য অস্ত যাচ্ছে । ぬWう