পাতা:চিদ্বিলাস - বিনয় কুমার সান্যাল.pdf/৪৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটিকে বৈধকরণ করা হয়েছে। পাতাটিতে কোনো প্রকার ভুল পেলে তা ঠিক করুন বা জানান।
৪৪
চিদ্বিলাস

স্থানে আছে “যতো বা ইমানি ভূতানি জায়ন্তে যেন জাতানি জীবন্তি যৎ প্রযন্ত্যভিসংবিশন্তি তদ্বিজিজ্ঞাস্য”। অর্থাৎ ব্রহ্ম হইতে জগৎ সৃষ্টি হইতেছে, ব্রহ্ম দ্বারাই জগতের স্থিতি হইতেছে, ব্রহ্মতেই সমস্ত লয় হইতেছে ইত্যাদি। আবার কোথায়ও আছে “সর্ব্বং খল্বিদং ব্রহ্ম” “একমেবাদ্বিতীয়ং” ইত্যাদি; অর্থাৎ সমস্তই ব্রহ্ম, ব্রহ্মাতিরিক্ত কিছুই নাই। এস্থলেও ব্যবহারিক ও পারমার্থিক ভেদ রহিয়াছে। যতদিন আমাদের অজ্ঞান থাকিবে ততদিন জগৎ থাকিবে এবং যখন অজ্ঞান দূরীভূত হইবে তখন জগতের সত্ত্বাও থাকিবেনা। যখন অজ্ঞানের অভাবে জগতের অভাব হয় তখন অজ্ঞান বা অবিদ্যাই জগতের কারণ। অবিদ্যা যে কখন আসিল তাহার সীমা নাই; অতএব অবিদ্যা অনাদি। আবার জ্ঞানের উদয় হইলে অবিদ্যার নাশ হয়, অতএব অবিদ্যা সান্ত। অবিদ্যার আবরণ ও বিক্ষেপ নামে দুইটি শক্তি আছে। আবরণ শক্তি সত্যকে আচ্ছন্ন করে এবং বিক্ষেপ শক্তি তাহাকে অন্য ভাবে প্রকাশ করে। রজ্জুতে যে সর্পভ্রম