পাতা:চেনা দায় - প্রিয়নাথ মুখোপাধ্যায়.pdf/৩৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।

চেনা দায়।

৩৫


 বছিরুদ্দিন। সমস্তই আমি লইয়া যাইতে চাহি না, একখানি হইলেই চলিবে।

 “এই বলিয়া বছিরুদ্দিন সেই বাক্সের ডালা খুলিয়া তাহার মধ্য হইতে তাহার ইচ্ছামত একখানি গহনা বাহির করিয়া লইয়া কহিল, “আপনি এখন এই গহনার বাক্স যে স্থানে ছিল, সেই স্থানে লইয়া যাইতে পারেন। একখানি গহনা এখন আমরা লইয়া যাইতেছি, দুই একদিবসের মধ্যে টাকা সহিত আসিয়া সমস্ত গহনা লইয়া যাইব।”

 “বছিরুদ্দিনের উপরি-উক্ত প্রস্তাবে তিনিও সম্মত হইলেন; কিন্তু কহিলেন, “জিজ্ঞাসা করি, একখানি গহনা তোমরা লইয়া যাইতেছ কেন?”

 বছিরুদ্দিন। একটু প্রয়োজন আছে বলিয়াই, লইয়া যাইতেছি। কেন মহাশয়! ইহাতে আপনার কোনরূপ আপত্তি আছে কি? যদি আমাদিগকে কোনরূপে অবিশ্বাস করেন, তাহা হইলে বলুন, উহা রাখিয়া যাই।

 সেই ব্যক্তি। তোমার উপর আমি কখনও কোনরূপে অবিশ্বাস করিয়াছি কি যে, আজ অবিশ্বাস করিতেছি। একখানি গহনা কেন, ইচ্ছা হয়, বাক্স সমেত সমস্ত অলঙ্কার লইয়া যাও, তাহাতেও আমার কিছুমাত্র অবিশ্বাস নাই। সমস্ত গহনা পরিত্যাগ করিয়া, কেবলমাত্র একখানি লইয়া যাইতেছ, তাই আমি জিজ্ঞাসা করিতেছিলাম যে, একখানি গহনা কি করিবে?

 বছিরুদ্দিন। একখানি গহনা কেন লইয়া যাইতেছি, তাহা কি আপনি বুঝিতে পারিতেছেন না। আমি যেমন আপনাকে সর্ব্বতোভাবে বিশ্বাস করি, এবং আপনিও আমাকে যথেষ্টরূপে