পাতা:চেনা দায় - প্রিয়নাথ মুখোপাধ্যায়.pdf/৪৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।

চেনা দায়।

৪৩


 “সন্ধ্যার পর সেই পাঁচ হাজার টাকার নোট লইয়া বছিরুদ্দিনের সহিত তাঁহার বাড়ীতে গমন করিলাম। দেখিলাম, তিনি তাঁহার সেই বাহিরের ঘরে আমাদিগের প্রত্যাশায় বসিয়া আছেন। আমরা গিয়া সেই স্থানে উপবেশন করিলে, তিনি কহিলেন, “কেমন বছিরুদ্দিন! সমস্তই ঠিক করিয়া আসিয়াছ ত?”

 “উত্তরে বছিরুদ্দিন কহিল, “দুই সহস্র টাকা ত আমি আপনাকে দিয়াই গিয়াছি, অবশিষ্ট পাঁচ হাজার টাকা আমরা সঙ্গে করিয়া আনিয়াছি।”

 “এই কথা শুনিয়া তিনি আমাদিগকে সঙ্গে লইয়া তাঁহার বাড়ীর ভিতর গমন করিলেন। পূর্ব্বে যেরূপ ভাবে ঘরের এবং বাড়ীর দরজা বন্ধ করিয়া দিয়াছিলেন, সেইরূপ ভাবে উহা বন্ধ করিয়া, যে ঘরের ভিতর আমরা সেইদিবস গিয়া উপবেশন করিয়াছিলাম, সেই ঘরের ভিতর আমাদিগকে বসিতে বলিয়া, তিনি বাহিরে গমন করিলেন, এবং অতি অল্প সময়ের মধ্যে পূর্ব্ববর্ণিত সেই গহনার বাক্সটী সঙ্গে করিয়া পুনরায় সেই ঘরের ভিতর প্রবেশ করিলেন। পরে গহনার বাক্সটীর চাবি আমার হস্তে প্রদান করিয়া কহিলেন, “আপনি এখন গহনাগুলি, আপনাদিগের নিকট যে তালিকা আছে, তাহার সহিত মিলাইয়া গ্রহণ করিতে পারেন।”

 “আমরা সেই বাক্সটী খুলিয়া সেই তালিকার সহিত সমস্ত গহনা মিলাইয়া দেখিলাম যে, উহা ঠিক আছে। তখন সেই গহনাগুলি পুনরায় সেই বাক্সের ভিতর পূরিয়া তাহাতে চাবি বন্ধ করিয়া দিলাম। চাবি আপনার নিকট রাখিয়া, আমার যে পাঁচ হাজার টাকার নোট ছিল, তাহা বাহির করিয়া দিলাম।