পাতা:জগজ্জ্যোতি বা নুরজাহান.pdf/২৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

হইতে লইয়া কাহার হস্তে সমর্পণ করিতে যাইতেছেন ? নূরজাহান তুমি যেরূপ রূপবতী, ইহাতে আমি তোমার যোগ্য পাত্র, ভারতবর্ষেত আর কাহাকেও দেখিতে পাইতেছি না। তোমার যোগ্য পাত্র বৃদ্ধ আকৃবর সা, না হয় তাহার উত্তরধিকারী জাহাঙ্গীর । আকৃবর সা, বুদ্ধাবস্থায় বালিকার পাণিগ্রহণ কখনই ত করিবেন না । কিন্তু বলিতে পারি কি. জগতের ত এই রীতিই দেখিতে পাইতেছি, যে, সুন্দরী স্ত্রী পাইলে, পুত্রের বিবাহ দিবার কথা ভুলিয়া গিয়া, রাজা রাই বিবাহ করিয়া ফেলেন । কিন্তু সমাটই হউন, বা, একটি সামান্য ব্যক্তিই হউক, আমি জীবিত থাকিতে তোমায় কাহাকেও বিবাহ করিতে দিব না । ( কিয়ৎক্ষণ নিস্তন্ধের পর ) প্রিয়সি, আর তোমায় আমায় পরিভ্যাগ করিয়া যাইভে হইবে না। অামি এখনি যাইয়া নিদ্রিত পিতাকে বধ করিগে, তাহা হইলে কল্য আর তোমায় আমার নিকট হইতে কে নিয়ে যায় ? নুব । নাথ, আপনি এ গর্হিত কৰ্ম্মে, কখনই প্রবৃত্ত হইবেন না ; দেখুন, পিতৃ হত্যার পাপ, আপনার রাখিবার আর স্থান হইবে না। আপনি অন্ত কোন উপায় অবলম্বন করুন। যদি কোন উপায় না পান, তাহা হইলে ঐ তরবারির দ্বারা অামাব মস্তক চ্ছেদন করিয়া সকল গোল মিটাইয়া দিন । জাহা । প্রিয়সি, জামায় আর বাধা দিও না, আমি চল্লেম । (কটদেশ হইতে ছুরিকা বহিষ্কৃত করিয়া জাহাঙ্গীরের প্রস্থান, এবং পশ্চাৎ পশ্চাৎ নুরজাহানের গমন )