পাতা:জয়তু নেতাজী.djvu/১৪৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


নেতাঞ্জী Şe o কেবল ধৰ্ম্মগুরুর আদেশ পালন করিবে । স্বাধীনতারূপ যে লক্ষ্য তাহার প্রতি দৃষ্টি রক্ষা করারও আবখ্যকতা নাই—সে ভার গুরুর ; পাছে সংগ্রামের চিস্ত থাকে, তাই মনকে দমন করিবার জন্ম, তাহারা অহিংসার মন্ত্র জপ করিবে এবং হাত-পাগুলাকে শাস্ত ও সংযত রাখিবার জম্ব স্থির হঠয়া চরকা ঘুবাইবে । তাহা হইলেই স্বাধীনতা আপনা-আপনি আসিয়া পড়িবে। কেবল গুরুর আজ্ঞা পালন করিলেই এমন একটি অবস্থার উদ্ভব হইবে যে, ইংবেঙ্গ ভারত-রাজ্য ছাড়িয়া দিতে বাধ্য ততবে * উপায় ও লক্ষ্যের মধ্যে বাস্তব-সম্পর্ক কি, তাহা সাধারণ বুদ্ধির অগোচর বলিয়াত, গুরুবাক্যে অচল বিশ্বাস রাখা চাই । গান্ধীজী এখন আর নেতা নহেন, তিনি ধৰ্ম্ম গুরু হইয়া জাগ্রত জনগণের সেই স্বাধীনতা-পিপাসাকে, তাহাদেব হৃদয়-মনের সেই উৎসাহকে, —দেশপ্রেমের সেই অপুৰ্ব্ব উন্মাদনাকে, সাহস-শৌর্য্য ও পুরুষোচিত কৰ্ম্ম-পৃহাকে নির্বাপিত করিয়া দিলেন। কারণ, তাহার ঐ ধৰ্ম্মোপদেশের মূল মন্ত্রই হইল—আত্ম-সংবরণ, আত্ম ংকোচ বা আত্ম-সম্মোহন । ক হাতে পুর্বের সেই ভাবস্রোত প্রথমে উজানে বহিল ; কিন্তু ক্রমেই ধৰ্ম্মে ও কৰ্ম্মে, লক্ষ্যে ও উপায়-নির্দেশে যে একটি দুৰ্ব্বোধ্য ব্যবধানকে মানিয়াও অস্বীকার করিতে হয়, তাহাতেই সেই বিরাট বাহিনী ভিতরে ভিতরে বিমূঢ় হইয়া উঠিল ; উপরের ঠাট বজায় রহিল, কিন্তু তাহার মেরুদণ্ডে ঘুণ ধরিল ; সেই গান্ধীধৰ্ম্মের বুলি ও বেশ আত্ম

  • vब्रिभिtड़े *त्राकी ७ नाकी-क९८अम न→एक शठायछटा” उrहेर] !