পাতা:জয়তু নেতাজী.djvu/৭৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


জয়তু নেতাজী "לס\ শ্রীরামকৃষ্ণ যে ভবিষ্যৎ-বাণী করিয়াছিলেন—“তাহার নিজের জলন্ত আত্ম-বিশ্বাসই আর সকলের অবসর চিত্ত্বে নষ্ট-বিশ্বাস ও সাহস ফিরাইয়। আনিবে”—ইহাও যেন নেতাজীর সম্বন্ধে আরও সত্য হইয়াছে । তথাপি দুই চরিত্র কি এক ? দুইয়ের মধ্যে কি কোন প্রভেদ নাই ? প্রভেদ কিছু না থাকিয়া পারে না, কারণ ব্যক্তির ব্যক্তিত্ব-ভেদ যে থাকিবেই। একেবাবে ব্ৰহ্মভূত না হইলে দুই আত্মা সম্পূর্ণ এক হয় না। আমি বলিয়াছি, উভয়ের ধাতু এক, আকার বা গঠনও এক ; তবু একই মেডালেব দুই পাশ্বের মত হইয়ের মুখ কিছু পৃথক, কিন্তু মেডেল একই । আমি বলিতে পারিতাম—একই বীজেব ফুল, জলমাটিও এক, কিন্তু এমনই যে, ঋতুভেদে তাহাব রঙের পরিবর্তন হইয়াছে । র্যাহারা আরও ভিতবে দৃষ্টি করিবেন, তাহারা কোন ভেদই মানিবেন না। কিন্তু ভেদ একটু মানিলে বুঝিবাব সুবিধা হয় । স্বামীজীর দৃষ্টি যেখানে নিবদ্ধ ছিল নেতাজীকে তাতার দৃষ্টি তথা হইতে একটু নিম্নে নিবদ্ধ করিতে হইয়াচ্ছে, তার কারণ, নেতাজীব লক্ষ্য আরও নিকট। স্বামীজী ছিলেন আদৌ বৈদাস্তিক সন্ন্যাসী—পরে দেশ-প্রেমিক, দেশ-হিঙত্রভী ; নেতাজী আদৌ দেশ-প্রেমিক, পরে দেশের সেবার জন্যই সন্ন্যাসী । স্বামীজীর প্রতিভা প্রেমের দ্বারা রঞ্জিত হইলেও, জ্ঞানই তাঁহার প্রধান লক্ষণ ; নেতাজীর প্রতিভায় বিশুদ্ধ জ্ঞানের প্রাধাক্ষ নাই— তাহার শক্তি প্রেমের শক্তি ; জ্ঞান—সেই শক্তির অনুমাত্রিক ।