পাতা:জয়তু নেতাজী.djvu/৮৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


8Ꮼ. জয়তু নেতাজী পৰ্য্যবসিত হইয়াছে—সম্ভ-বিনাশ বা মহামৃত্যুর আক্রমণ হইতে রক্ষাব উপায়। এখন প্রত্যেক মানুষ প্রতি মুহূর্বে সেই সমস্যাকে একেবারে দেহের দ্বারা অনুভব কবিতেছে, কোন দূরতর রাজনৈতিক লক্ষ্য, গভীরতব ও উচ্চতর অভিপ্রায়-সিদ্ধির জন্ত অপেক্ষা করিবার সময় বা সামর্থ্য নাই । রাজনীতি এখন সাক্ষাৎ অল্প-নীতি হইয়া দাড়াইয়াছে ; ভারতবর্ষের মানুষ এতদিনে, বালবৃদ্ধবনিতা-নির্বিবশেষে, সকল রাজনীতির মূলনীতিকে জঠরের সাহায্যেই মস্তিষ্কগোচর করিয়াছে—মৃত্যুর করালমূৰ্ত্তি তাহাব জীব-চৈতন্তে হানা দিয়াছে। এতদিনে যাহাকে একটা আদর্শ-প্রীতি, উচ্চাকাঙ্ক্ষা, বা মহতের অসন্তোষ বলিয়া সাধারণ নরনারী তেমন গ্রাহ করে নাই, আজ তাহাকে অতি ক্রুব বাস্তবরূপে—শ্বাসকষ্টের মত – অমুভব কবিতেছে। এই অবস্থার নিদান এবং ইহার আরোগ্য-চিন্তার অধিকার এখন আব কোন দল বা সম্প্রদায়ের নয়—সকলের ; এখন আর কোন মতবাদ নয়—যাহা প্রত্যক্ষ তাহাকেই স্বীকাব করিতে হইবে । এই প্রবন্ধে আমি সেই অধিকার সকলকে দিয়া, এই অবস্থার পূৰ্ব্বাপর ইতিহাস, এবং সেই ইতিহাসে এ পর্য্যন্ত যে দুইটি প্রধান নায়ক-মূৰ্ত্তি দেখা দিয়াছে তাহাদের নীতি ও কীৰ্ত্তি সম্বন্ধে কিঞ্চিং আলোচনা কবিব ! 帶 尊 尊 দেশের এই অবর্ণনীয় ছৰ্দশার মূলে যে একটিমাত্র কারণ আছে—পরাধীনতা, আজ তাহ বালকেও স্বীকার করিবে, কিন্তু