পাতা:জোড়া পাপী - প্রিয়নাথ মুখোপাধ্যায়.pdf/১৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।

১৬

দারোগার দপ্তর, ২০৪ সংখ্যা।


তখনই আমার পুকে পোষ পুত্ররূপে লইয়াছিলেন এবং তাহারই নামে সেই সমস্ত বিষয় উইল করিয়া দেন।

 এইরূপ কথাবার্ত্তায় গাড়ীখানি পালপাড়ায় আসি। উপস্থিত হইল। কোচমান উপুর হইতে বলিল, “বাবু, পালপাড়ায় কাহার বাড়ীতে যাইব?”

 আমি যুবকের দিকে চাহিয়া জিজ্ঞাসা করিলাম, “আপনি আর আমার জন্য কষ্ট করেন কেন? তবে, কোচমানকে ভাল করিয়া বলিয়া দিন, যেন সে ভবিষ্যতে কোনরূপ গোলযোগ না করে।”

 আমার কথা শুনিয়া যুবক কি চিন্তা করলেন। পরে বলিলেন, “কেমন করিয়াই বা আপনাকে একা ছাড়িয়া দিই। আপনার সহিত আলাপ করিয়া পরম আপায়িত হইয়াছি। যেখানে আপনি যাইতেছেন তাহা কি আপনার পরিচিত? আপনি কি পূর্ব্বে আর কখনও সেখানে গিয়াছিলেন?”

 যুবকের প্রশ্নে সহসা আমার মুখ দিয়া সত্য কথাই নির্গত হইল। আমি বলিলাম, “আজ্ঞে না।”

 যু। যদি বিশেষ প্রয়োজন না থাকে, তাহা হইলে আজ রাত্রে কেন আমাদের বাড়ীতেই আসুন না। ব্রাহ্মণের বাড়ীতে একরাত্রি যাস করলে কোন ক্ষতি হইবে না বোধ হয়। কথায় কথায় আপনার নাম পর্য্যন্ত জিজ্ঞাসা করিতে ভুলিয়া গিয়াছিলাম।

 আমি নাম বলিলাম; কিন্তু প্রকৃত নাম গোপন করিলাম। পদবীর পরিবর্তন করিলাম না।

 আমার কণা নিয়া যুবক সাগ্রহে বলিলেন, “তবে আর কি ‘ব্রাহ্মণস্য ব্রাহ্মণো গতি: ’ আপনি যখন ব্রাহ্মণ, তখন আর আমাদের বাড়ীতে যাইতে আপত্তি কি?”