পাতা:জোড়া পাপী - প্রিয়নাথ মুখোপাধ্যায়.pdf/৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।

দারোগার দপ্তর, ২০৪ সংখ্যা।


 ইন্সপেক্টারবাবু বলিলেন, “আমি কোচমানকে ডাকিতে পাঠাই তেছি। তাহার মুখে সকল কথা শুনিলে এ রহস্য অনেকটা বুঝিতে পারিবেন। সেই স্থানে উপস্থিত লোকদিগের মধ্যে কেহই গাড়ীর ভিতরে কোন লোককে দেখে নাই। কিন্তু কোচমান বলিতেছে, একজন পুরুষ ও একজন, মণী তাহার গাড়ীতে ছিল। সেই জই অনুমান হইতেছে, লোকটা সকলের অগোচরে পলায়ন করিয়াছে।”

 কিছুক্ষণ পরে কোচমন আসিয়া উপস্থিত হইল। আমাকে দেখিয়াই সে ভয়ে কাপিতে লাগিল। একে বৃদ্ধ, তাহাতে জীর্ণ শীর্ণ, আমি তাহাকে অভয় দিয়া জিজ্ঞাসা করিলাম, “কোথা হইতে সওয়ারি লইয়াছিলে?”

 সভয়ে হাত জোড় করিয়া কোচমান বলিল, “আজ্ঞে হাওড়া ষ্টেশন হইতে।”

 আ। কোথায় যাইতেছিলে?

 কো। বাগবাজারে।

 আ। কয়জন সওয়ারি ছিল?

 কো। আজ্ঞে দুই জন, একজন পুরুষ আর একজন স্ত্রী লোক।

 আ। যিনি মারা পড়িয়াছেন, সেই স্ত্রীলোক কি তোমার গাড়ীতে ছিল?

 কো। আজ্ঞে হ্যাঁ।

 আ। পুরুষটি কোথায়?

 কো। আজ্ঞে সে কথা বলিতে পারিলাম না। যখন আমার গাড়ী হইতে স্ত্রীলোকটা পড়িয়া যায়, তখন আমার এত