পাতা:ঠাকুরমার ঝুলি.djvu/১১৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

ঠাকুরমা’র বুলি 浚 ŞIK ডাকের উপর ডাক-“রাজপুত্র! রাজপুত্র! ফিরে’ চাও ! ফিরে’ চাও ! কথা শোন!” f বরুণ ফিরিয়া চাহিতেই পাথর হইয়া গেলেন। —“হায় ! দাদাও আমার পাথর হইয়াছেন !” আর হইয়াছেন ;-কে আসিয়া উদ্ধার করিবে ? অরুণ বরুণ জন্মের মত পাথর হইয়া রহিলেন । ভোরে উঠিয়া কিরণমালা দেখেন, তীরের ফলা খসিয়া গিয়াছে, ধনুর ছিল ছিড়িয়া গিয়াছে—অরুণদাদা গিয়াছে, বরুণদাদাও গেল। কিরণমালা কঁাদিল না, কাটিল না, চক্ষের জল মুছিল না ; উঠিয়া কাজল লতাকে খড় খৈল দিল, গাছগাছালীর গোড়ায় জল দিল, দিয়া রাজপুত্রের পোষাক পরিয়া, মাথে মুকুট হাতে তারোয়াল,---কাজল লতার বাছুরকে, হরিণের ছানাকে চুমু খাইয়া, চক্ষের পলক ফেলিয়া কিরণমালা মায়াপাহাড়ের উদ্দেশে বাহির হইল । যায়,-যায়,-কিরণমালা আগুনের মত উঠে, বাতাসের আগে ছুটে ;-কে দেখে, কে না-দেখে ! দিন রাত্রি, পাহাড় জঙ্গল, রোদ বান সকল লুটাপুটি গেল ; ঝড় থমকাইয়া বিদ্যুৎ চমকাইয়া তের রাত্রি তেত্রিশ দিনে কিরণমালা পাহাড়ে গিয়া উঠিলেন। * .ܓ ܬܐܨܝܢ অমনি চারিদিক দিয়া দৈত্য, দানা, বাঘ, ভালুক, সাপ, হাতী, সিংহ, মোষ, ভূত পেত্নীতে আসিয়া কিরণমালাকে ঘিরিয়া ধরিল । ** ** ** ** ** ബتبدیلیا”کل