পাতা:ঠাকুরমার ঝুলি.djvu/১৫৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

沙 2K ঠাকুরমা’র বুলি মন্ত্র পড়িয়া রাক্ষসী তাড়াতাড়ি আসিয়া রাজপুরীর হাজার, সিড়ির ধাপে উঠিয়া বলিল,-“সিড়ি, তুমি কা’র ?” সিড়ি বলিল,-“যে যখন যায়, তা’র ।” রাক্ষসী বলিল, “তবে সিড়ি দু’ফাক হও, এই ডালিমের বীজ তোমার ফাটলে থাক।” ডালিমের বীজ হাজার সিড়ির ধাপের নীচে জন্মের মত বন্ধ হইয়া রহিল। --রাক্ষসী গিয়া নিশ্চিন্তে দুধ-ধব-ধব শয্যায় শুইয়া ঘুমাইয়া পড়িল । অমনি,-আট রাজপুত্র কোনু বনের মধ্যে পড়িয়াছিলেন, সেইখানে খটাস করিয়া বড়কুমারের চোক অন্ধ হইয়া গেল,— বড়কুমার চীৎকার করিয়া উঠিলেন,-“ভাই রে! বিছার কামড়, -গোলাম, গোলাম !” সূৰ্য্য ডুবিয়া গেল, চারিদিকে ঝড় বৃষ্টি, অন্ধকার,-বনের মধ্যে কিছু দেখা যায় না, শোনা যায় না, বড়রাজকুমার কোথায় পড়িয়া রহিলেন, চর-কটক কোথায় গেল,-সাত রাজপুত্রের ঘোড়া ঝড়ের আগে ছুটিয়া চলিল । ( & ) ব্লাক্ষসী তো স্বপ্ন দেখে,-সুতাশঙ্খ এতক্ষণে যম-যমুনা। দেশের ‘সে পার” —ওদিকে সুতাশঙ্খ সারাদিন গাছে গাছে৷ চলিয়া, হায়রাণ; একখানে রাত্রি হইল, কে আর যায় ? পরিপাটি রাজার বাগান,-বাগানের এক গাছের ফলের মধ্যে ঢুকিয়া, বেশ করিয়া কুণ্ডলী মুণ্ডলী।পাকাইয়া, সূতা ঘুমাইয়া রহিল। 汤 ᏕᏔ•Ꮔ