পাতা:তপতী - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


\ 8 তপতী কালিমায়, কুঙ্কুমের রক্তিমায়, নীল কঞ্চলিকার নীলিমায়,— উনি রমণীর লালনে লালিতে আচ্ছন্ন আবিষ্ট, তাই তো বজ্রপাণি ইন্দ্রের সভায় উনি লজ্জিতভাবে চরের বৃত্তি করেন। রুদ্রের পৌরুষের আগুনে তাই তো ওঁকে দগ্ধ ছেলে)

  • দেবদত্ত সে-ইতিহাস তো চুকে গেচে । আবার সেই পোড়া দেবতাকে নিয়ে কেন এই উপসর্গ ? পুনৰ্ব্বার ওঁকে পোড়াতে হবে না কি ?

বিক্রম না, তাকে মৃত্যুর ভিতর দিয়েই বাচাতে হবে9°সেজন্যে বীরের শক্তি চাই। তোমাদের ভৈরবের স্তব হবে না আমাদের মানকেতুর স্তব যদি তা’র সঙ্গে না যোগ করি } . il ভস্ম-অপমান-শয্যা ছাড়ে, পুষ্পধনু, রুদ্র-বহ্নি হ’তে লহো জলদচ্চি তনু । যাহা মরণীয় যাক ম'রে, জাগে অবিস্মরণীয় ধ্যানমূৰ্ত্তি ধ’রে। যাহা রূঢ়, যাহা মূঢ় তব, যাহা স্থল দগ্ধ হোক, হও নিত্য নব । মৃত্যু হ’তে জাগো পুষ্পধনু, হে অতনু, বীরের তন্থতে লহে তনু ॥ ১ । তোমরা জানো না, মহেশ্বর মদনকে অগ্নিবর यिक'