পাতা:তপতী - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


o/o নাটকটি অভিনয়ের উদ্যোগ করেন তখন এটাকে যথাসম্ভব সংক্ষিপ্ত ও পরিবর্তিত করে একে অভিনয়যোগ্য করবার চেষ্টা করেছিলুম। দেখলুম এমনতরো অসম্পূর্ণ সংস্কারের দ্বারা সংশোধন সম্ভব নয়। তখনই স্থির করেছিলুম এ নাটক আগাগোড়া নতুন ক’রে না লিখলে এর সদগতি হ’তে পারে না । লিখে এই বইটার সম্বন্ধে আমার সাধামতো দায়িত্ব শোধ করেচি | পুরানো নাটককে নতুন ক’রে যখন লেখা গেল তখন পুরাতনের মোহ কাটিয়ে তা'র নতুন পরিচয়কে পাকা করতে গেলে অভিনয় ক’রে দেখানো দরকার। সেই চেষ্টা করতে প্রবৃত্ত হ’য়েচি । এই উপলক্ষ্যে নাট্যমঞ্চের আয়োজনের কথা সংক্ষেপে বুঝিয়ে বলা আবশ্যক। আধুনিক যুরোপীয় নাট্যমঞ্চের প্রসাধনে দৃশ্যপট একটা উপদ্রবরূপে প্রবেশ করেচে। ওটা ছেলেমানুষী । লোকের চোখ ভোলাবার চেষ্টা। সাহিত্য ও নাট্যকলার মাঝখানে ওটা গায়ের জোরে প্রক্ষিপ্ত। কালিদাস মেঘদূত লিখে গেচেন, ঐ কাব্যটি ছন্দোময় বাক্যের চিত্রশালা । রেখাচিত্রকর তুলি-হাতে এর পাশে পাশে তার রেখাঙ্ক ব্যাখ্যা যদি চালনা করেন তাহ’লে কবির প্রতিও যেমন অবিচার, পাঠকের প্রতিও তেমনি অশ্রদ্ধা প্রকাশ করা হয়। নিজের কবিত্বই কবির পক্ষে যথেষ্ট, বাইরের সাহায্য তার পথে সাহায্যই নয়, সে ব্যাঘাত ; এবং অনেক স্থলে স্পৰ্দ্ধ। ।