পাতা:তারাচরিত.pdf/৪০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।
২৯
তারাচরিত।

সকল সন্দর্শন করিতে করিতে পৃথ্বীরাজ রাজপথে পদচারণ করিতেছেন। কতই কি সুখচিন্তা বিশাল তরঙ্গমালার ন্যায় তাঁহার হৃদয়কে আপ্লুত করিতেছে। কোথাও দেখিতেছেন যে লোক সকল আমোদে উন্মত্ত হইয় গ্রাম্য সঙ্গীত দ্বারা মনকে চরিতার্থ করিতেছে। কোথাও দেখিতেছেন যে অসংখ্য শ্রুতিমধুর মনোহর বাজনা সকল বাজিয়া লোকদিগকে আমোদিত করিতেছে। কোথাও নাচ কোথাও তামাসা হইতেছে। এই সকল দেখিতে দেখিতে পৃথ্বীরাজ ক্রমে ক্রমে রাজবাটীর সম্মুখীন হইলেন। দেখিলেন যে তারাবাই বসিয়া আছেন এবং মালতীর সহিত কি কথোপকথোন হইতেছে। মালতী বলিতেছেন সখি আপনিই এই ধরাতলে ধন্য। নারী কুল পবিত্র করিবার জন্যই বিধাতা আপনাকে সৃষ্টি করিয়াছেন। আমি আপনার মধুর রূপে বা প্রণয়ে মুগ্ধ হইয়া বলিতেছিনা। রাজকুমারি যাহার অন্তঃকরণে এত অধিক পরিমাণে স্বদেশের রক্ষার যত্ন তিনি কি প্রশংসার পাত্ৰী হইতে পারেন না। সজনি আমি কায়মনোবাক্যে প্রার্থনা করিতেছি যে সুরতন মহাশয় তোমার উপর প্রসন্ন হইয়া তোমার মনোভীষ্ট সিদ্ধ করুন্। তারা বলিলেন সখি তুমি আমাকে ভালবাস বলিয়া কি আমাকে এত বলিতে হয়? সখি আমি তোমাকে বলিতেছি আমি এত প্রশংসার কাজ কি করিয়াছি যে আমার এত সুখ্যাতি করিতেছ? দেখ সখি এই অখণ্ড ব্ৰহ্মাণ্ড মণ্ডলে জন্ম গ্রহণ করিয়া যাঁহারা স্ব স্ব কার্য্যের যথার্থ রূপে অনুষ্ঠান করিতে