পাতা:তাসের দেশ - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/২৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


রাজা । তোমার পত্রে সম্পাদকীয় স্তম্ভ আছে তো ? গোলাম । তুটো বড়ো বড়ো স্তম্ভ । রাজা । সেই স্তম্ভের গর্জনে সবাইকে স্তস্তিত করে দিতে হবে । এখানকার বায়ুকে লঘু করা সইব না। গোলাম । বাধ্যতামূলক আইন চাই । রাজা। ওটা আবার কী বললে ! বাধ্যতামূলক আইন । গোলাম । কান-মলা আইনের নব্য ভাষা । এও নবতম অবদান । রাজা । আচ্ছা, পরে হবে । বিদেশী, তোমার কোনো আবেদন আছে ? রাজপুত্র । আছে, কিন্তু তোমার কাছে নয় । রাজা । কার কাছে । রাজপুত্র । এই রাজকুমারীদের কাছে । রাজা । আচ্ছা, বলো । গান রাজপুত্র । ওগো শাস্ত পাষাণমুদ্ৰতি সুন্দরী, চঞ্চলেরে হৃদয়তলে লও বরি । কুঞ্জবনে এসে এক, নয়নে আশ্র দিক দেখা, অরুণরাগে হোক রঞ্জিত বিকশিত বেদনার মঞ্জরী ॥ রানী । এ কী অনিয়ম । এ কী অবিচার ! পঞ্জা । রাজাসাহেব, নির্বাসন, ওকে নির্বাসন ! রাজা। নির্বাসন ! রানীবিবি, তোমার কী মত। চুপ ক’রে রইলে যে ? শুনছ আমার কথা ? একটা উত্তর দাও । কী বলে, নির্বাসন তো ? রানী । না, নির্বাসন নয় । টেঙ্কাকুমারীরা ( একে একে ) ৷ না, নির্বাসন নয় । রাজা । রানীবিবি, তোমাকে যেন কেমন-কেমন মনে হচ্ছে । রানী । আমার নিজেরই মনে হচ্ছে কেমন-কেমন । গোলাম । টেঙ্কাকুমারী, বিবিমুন্দরী, মনে রেখো, আমার হাতে সম্পাদকীয় স্তম্ভ । ३९७