পাতা:তাসের দেশ - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/২৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


সকলে । কৃষ্টি, কৃষ্টি, তাসদ্বীপের কৃষ্টি । বাচাও সেই কৃষ্টি । গোলাম । জারি করে বাধ্যতামূলক আইন । রাজা । অর্থাৎ ? গোলাম । কান-মলা মোচড়ের আইন । রাজা । বুঝেছি। রানীবিবি, তোমার কী মত। বাধ্যতামূলক আইন এবার তবে চালাই ? রানী। বাধ্যতামূলক আইন অন্দরমহলে আমরাও চালিয়ে থাকি— দেখব, কে দেয় কাকে নির্বাসন । টেক্কাকুমারীরা (সকলে ) । আমরা চালাব অবাধ্যতামূলক বে-আইন । গোলাম । এ কী হল । হায় কৃষ্টি, হায় কৃষ্টি, হায় কৃষ্টি । রাজা । সভা ভেঙে দিলুম। এখনি সবাই চলে এসে । আর এখানে থাকা নিরাপদ নয় । তাসের দলের প্রস্থান সদাগর । ভাই সাঙাত, এখানে তো আর সহ্য হচ্ছে না । এরা যে বিধাতার ব্যঙ্গ । এদের মধ্যে পড়ে আমরা-সুদ্ধ মাটি হয়ে যাব । রাজপুত্র। ভিতরে ভিতরে কী ঘটছে সেটা কি তোমার চোখে পড়ে না । পুতুলের মধ্যে প্রথম প্রাণের সঞ্চার কি অনুভব করছ না । আমি তো শেষ পর্যস্ত না দেখে যাচ্ছি নে । সদাগর । কিন্তু, এ যে জীবনমৃতের খাচী, নিয়মের জারকরসে জীর্ণ এদের মন । রাজপুত্র। ঐ দিকে চোখ মেলে দেখো দেখি । সদাগর । তাই তো বন্ধু, লেগেছে সমুদ্রপারের মন্ত্র। ইস্কাবনের নহল গাছের তলায় পা ছড়িয়ে আকাশের দিকে তাকিয়ে— দেখছি এখানকার নিয়ম গেল উড়ে । রাজপুত্র। চিড়েতনীর পায়ের শব্দ শুনছে আকাশ থেকে । এ সময়ে বোধ হয় আমাদের সঙ্গটা ওর পছন্দ হবে না । চলো, আমরা সরে যাই । প্রস্থান