পাতা:তাসের দেশ - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৪৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শাস্ত সেই জন যম তারে ঠেলে ঠেলে নেড়েচেড়ে যায় ফেলে, বলে “মোর নাহি প্রয়োজন । শোনো বিদেশী । রাজপুত্র । আদেশ করে । রাজা । তোমরা যে তাসদ্বীপময় অস্থির হয়ে বেড়াচ্ছ— জলে দিচ্ছ ভুব, চড়ছ পাহাড়ের মাথায়, কুডুল-হাতে বনে কাটছ পথ— এ-সব কেন । রাজপুত্র। রাজাসাহেব, তোমরা যে কেবলই উঠছ বসছ, পাশ ফিরছ, পিঠ ফেরাচ্ছ, গড়াচ্ছ মাটিতে, সেই-বা কেন । রাজা । সে আমাদের নিয়ম । রাজপুত্র। এ আমাদের ইচ্ছে। রাজা । ইচ্ছে । কী সর্বনাশ । এই তাসের দেশে ইচ্ছে । বন্ধুগণ, তোমরা সবাই কী বল । g ছক্কা-পঞ্জা । আমরা ওর কাছে ইচ্ছেমন্ত্র নিয়েছি । রাজা । কী মন্ত্র । গান ছক্কা-পঞ্জা । ইচ্ছে । ইচ্ছে । সেই তো ভাঙছে, সেই তো গড়ছে, সেই তো দিচ্ছে নিচ্ছে । সেই তো আঘাত করছে তালায়, সেই তো বাধন ছি ড়ে পালায়, বাধন পরতে সেই তো আবার ফিরছে। রাজা । যাও যাও, এখান থেকে চলে যাও, শীঘ্ৰ চলে যাও । হরতনী, কানে পৌছল না কথাটা ? চিড়েতনী, দেখছ ওর ব্যবহারটা ? হঠাৎ এমন হল কেন। হরতনী । ইচ্ছে । – অন্ত টেক্কার । ইচ্ছে । স্ব ১২॥৬ 侈>