পাতা:ত্রিদিববিজয় কাব্য.djvu/১০৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


st ত্রিদিব বিজয় । দৈত্যপতি-বাণী, দৈত্য আরস্তিল । “হায়, নাথ ! নিপতিত দৈত্য শত শত রণভূমে ; কিন্তু নহে বলক্ষয় তবু দেবসম । লণ্ড ভণ্ড দেব-সেন । শিখিধবজ কোথা লুক্কায়িত, নাহি জানে ভেদ কেহ । সহস্ৰ শতেক, সংখ্যাতীত দেবসেন। গতজীব রণে ; লক্ষ লক্ষ প্রহরণ হৃত দৈত্যবলে ; অথবা চুর্ণিত রণে রয়েছে পড়িয়া, নিস্ফল । দেবগণ সবে । অসন্দিগ্ধ, অসতর্ক এবে । এখনই আক্রম বলী ভীম পরাক্রমে । নিমেষে। নির্দেব স্বর্গ হইবে এখনি ; সন্দেহ না কর সুধি । তব ভুজবল, কাহার সে সাধ্য হেন রোধিবে জগতে, স্বরারি । লও মম বাক্য অচিরাং, । কার্য্যসিদ্ধি বিজ্ঞজনে সদা, এ সীর কথা কহিনু তোমারে।” শুনিতে শুসিতে বলী উন্মীলি লোচন, চাহিলেন শূন্তপখে । চমকি ত্ৰাসিলা দৈত্য ; শত সূৰ্য্য যেন একত্র গগনে উদি বাধিলা জগতে । গভীর গর্জনে, আলোড়িয়া দিগন্তের স্থদুর পরিধি, বারিধিহুঙ্কার সম কহিলা