পাতা:দানবদলন কাব্য.pdf/১১৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।
[ ১০৯ ]

ধূমাকারে ধূলি উড়ি আঁধার আকাশ,
মৃত্যুর চিৎকার রবে পূরিল সংসার;
ত্রাসেতে পলায় প্রাণী সংসার ছাড়িয়া।
যথা প্রলয়ের ঝড়ে নিবিড় কানন,
বিরল পল্লব পত্র, বিরল অনীক
হইল তেমনি ক্রমে সে সমর ক্ষেত্র।
কর্দ্দমিত হলো ধরা শোণিত স্রোতেতে।
আর না উড়িল ধূলি গগন আঁধারি,
দেখিল জগৎ তবে ভয়ঙ্কর মূর্ত্তি,
সে সমর বিষ ফল! মুদিত নয়নে
পড়েছে অগণ্য বীর তীক্ষ্ণ শেলাঘাতে,
বাহির করিয়া জিহ্বা; কাহার ভেঙ্গেছে
শির; ঘোর দণ্ডাঘাতে রক্তধারা বহি
ভেসেছে কপোল বক্ষ; ছিন্ন মুণ্ডকার
গড়াগড়ি পাড়ি; মাখি রক্তের কর্দ্দম
হয়েছে ভীষণ; কেহ সাংঘাতিকাঘাতে
ত্যজিছে পরাণ, তবু জ্বলিছে নয়ন
ক্রোধে; জ্বলে যথা বহ্নি, ফুরালে সমিধ
ক্ষণকাল, ঝল মলে পাইতে নির্ব্বাণ।
যুঝে যারা এবে, যুঝে যেন তারা সবে
মৃত্যু মূর্ত্তিমান হয়ে;—কুটিল ললাট,
আলু থালু দীর্ঘকেশ, জ্বলে রক্ত আঁখি;

১০