পাতা:দুই বোন - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১০৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।
১১২
দুই বোন

উমি কোনো উত্তর দেবার পূর্বেই শৰ্মিলা ব’লে উঠল, “যাবে বই কি । নিশ্চয় যাবে। একটু বাইরে ঘুরে আসবার জন্যে ও যে ছটফট করছে ।” প্ৰশ্ৰয় পেয়ে দুদিন না যেতেই জিজ্ঞাসা করলে, “সাৰ্কাস ? ” এ প্ৰস্তাবে উমিমালার উৎসাহই দেখা গেল । তারপরে, “বোটানিকাল গাৰ্ডেন ?” এইটেতে একটু বাধল। দিদিকে ফেলে বেশিক্ষণ দূরে থাকতে উৰ্মির মন সায় দিচ্ছে না । দিদি স্বয়ং পক্ষ নিল শশাঙ্কর । রাজ্যের রাজ মজুরদের সঙ্গে দিনে দুপুরে ঘুরে ঘুরে খেটে খেটে মানুষটা যে হয়রান হোলো, সারাদিন কেবল কাটছে ধুলোবালির মধ্যে । হাওয়া না খেয়ে এলে শরীর যে পড়বে ভেঙে । এই একই যুক্তি অনুসারে সীমারে ক’রে রাজগঞ্জ পৰ্যন্ত ঘুরে আসা অসংগত হোলো না । শৰ্মিলা মনে মনে বলে, যার জন্যে কাজ খোয়াতে ওর ভাবনা নেই তাকে সুদ্ধ খোয়ানো ওর সইবে না । শশাঙ্ককে স্পষ্ট করে কেউ কিছু বলেনি বটে কিন্তু