পাতা:দুই বোন - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১১৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।
১১২
দুই বোন

ক’রে বিছানা থেকে উঠেই আয়নার টেবিলের উপরে হঠাৎ সবলে মুষ্টিঘাত করে বলে উঠল, “যাব না। নেপােল।” দৃঢ় পণ করলে, “আমরা দু-জনে উৰ্মিকে নিয়ে কলকাতাতেই থাকব —দ্ৰুকুটিকুটিল সমাজের ক্রর দৃষ্টির সামনেই। আর এইখানেই ভাঙা ব্যবসাকে অার একবার গড়ে তুলব এই কলকাতাতেই ব’সে।” যে-যে জিনিস সঙ্গে যাবে, যা রেখে যেতে হবে, শৰ্মিলা বসে বসে তারি ফৰ্দ করছিল একটা খাতায়। ডাক শুনতে পেলে “শৰ্মিলা, শমিলা।” তাড়াতাড়ি খাতা ফেলে ছুটে গেল স্বামীর ঘরে। অকস্মাৎ অনিষ্টের অাশঙ্কা ক’রে কম্পিত হৃদয়ে জিজ্ঞাসা করলে, “কী হয়েছে। ” বললে, “যাব না নেপালে। গ্ৰাহ করব না। সমাজকে। থাকব এইখানেই।” শমিলা জিজ্ঞাসা করলে, “কেন, কী হয়েছে।” শশাঙ্ক বললে, “কাজ অাছে।” সেই পুরাতন কথা। কাজ আছে। শৰ্মিলার বুক দুর দুরু করে উঠল। “শমি, ভেবো না আমি কাপুরুষ। দায়িত্ব ফেলে পালাব অামি, এত অধঃপতন কল্পনা। করতেও পারো? ”