পাতা:দুই বোন - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৫৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


‘ঐবিজয়’লক্ষ্মী প্রথম দেখা আবছায়াতে আঁধার তখন ধরা, সেদিন সন্ধ্যা সপ্তঋষির আশীর্বাদে ভরা। প্রাতে মোদের মিলন-পথে উষা ছড়ায় সোনা, সে পথ বেয়ে লাগল দোহার প্রাণের আনাগোনা । দুইজনেতে বাধনু বাসা পাথর দিয়ে গেথে, দুইজনেতে বসন্তু সেথায় একটি আসন পেতে । বিরহরাত ঘনিয়ে এল কোন বরষের থেকে । কালের রথের ধুলা উড়ে দিল আসন ঢেকে । বিস্মরণের ভাটা বেয়ে কবে এলেম ফিরে ক্লান্তহীতে রিক্তমনে একা আপন তীরে । বঙ্গসাগর বহুবরষ বলে নি মোর কানে সে যে কভু সেই মিলনের গোপন কথা জানে। জাহ্নবীও আমার কাছে গাইল না সেই গান সুদূর পারের কোথায় যে তার আছে নাড়ীর টান । এবার আবার ডাক শুনেছি, হৃদয় আমার নাচে, হাজার বছর পার হয়ে আজ আসি তোমার কাছে । মুখের পানে চেয়ে তোমায় আবার পড়ে মনে আরেক দিনের প্রথম দেখা তোমার শ্যামল বনে । হয়েছিল রাখীর্বাধন সেদিন শুভ প্রাতে ; সেই রাখী যে আজো দেখি তোমার দখিন হাতে । এই-যে পথে হয়েছিল মোদের যাওয়া-আসা আজো সেথায় ছড়িয়ে আছে আমার ছিন্ন ভাষা । 8X