পাতা:দেবী চৌধুরানী - বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.djvu/১২৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


s फुडौग्न १७-ठङ्कर्ष ब्रिट्झम ویه তাই আমরা জুই জনে বল্লুকদাজ সংগ্ৰহ করিয়া লইয়া আসিয়াছি। বরকন্দাজ জঙ্গলে লুকাইয়া রাখিয়া আমি তীরে বসিয়াছিলাম। ছিপ আসিতেছে দেখিয়া, আমি ভেরী বাজাইয়া সঙ্কেত করিয়াছি। - - • দেবী। ও জঙ্গলেও সিপাহী আছে ? রঙ্গ। তাহাদের আমরা ঘেরিয়া ফেলিয়াছি । ’ দেবী। ঠাকুরঞ্জি কোথায় ? রঙ্গ। ঐ বরকন্দাজ লইয়া বাহির হইতেছেন। দেবী। তোমরা কত বরূকন্দাজ আনিয়াছ ? রঙ্গ। প্রায় হাজার হইবে । দেবী। সিপাহী কত ? রঙ্গ। শুনিয়াছি পাচ শ । দেবী। এই পনের শ লোকের লড়াই হইলে, মরিবে কত ? রঙ্গ। তা দুই চারি শ মরিলেও মরিতে পারে। দেবী। ঠাকুরজিকে গিয়া বল—তুমিও শোন যে, তোমাদের এই আচরণে আমি আজ মৰ্ম্মান্তিক মনঃপীড়া পাইলাম । রঙ্গ । কেন, মা ? দেবী । একটা মেয়েমানুষের প্রাণের জন্য এত লোক ভোমরা মারিবার বাসনা করিয়াছ —তোমাদের কি কিছু ধৰ্ম্মজ্ঞান নাই ? আমার পরমায়ু শেষ হইয়া থাকে, আমি এক মরিব— আমার জন্য চারি শ লোক কেন মরিবে ? আমায় কি তোমরা এমন অপদার্থ ভাবিয়াছ যে, আমি এত লোকের প্রাণ নষ্ট করিয়া আপনার প্রাণ বঁাচাইব ? রঙ্গ । আপনি বাচিলে অনেক লোকের প্রাণরক্ষা হইবে। দেবী রাগে, ঘৃণায়, অধীর হইয়া বলিল, “ছি!” সেই ধিক্কারে রঙ্গরাজ অধোবদন হইল—মনে করিল, “পৃথিবী দ্বিধা হউক, আমি প্রবেশ করি।” দেবী তখন বিস্ফারিত নয়নে, ঘৃণাফুরিত কম্পিতাধরে বলিতে লাগিল, “শোন, রঙ্গরাজ ! ঠাকুরজিকে গিয়া বল, এই মুহূর্ভে বরূকন্দাজ সকল ফিরাইয়া লইয়া যাউন। ভিলাৰ্দ্ধ বিলম্ব হইলে, আমি এই জলে কঁপি দিয়া মরিব, তোমরা কেহ রাখিতে পরিবে না।” রঙ্গরাঞ্জ এতটুকু হইয়া গেল। বলিল, “আমি চলিলাম। ঠাকুরজিকে এই সকল কথা জানাইব। তিনি যাহা ভাল বুঝিবেন, তাহা করিবেন। আমি উভয়েরই আজ্ঞাকারী।” ›ፃ