পাতা:দেবী চৌধুরানী - বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.djvu/৬৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


প্রথম খণ্ড–চতুর্দশ পরিচ্ছেদ ss o উড়াইয়া দিল, কিন্তু ব্ৰহ্মঠাকুরাণীকে পারিল না। বুড়ী ব্ৰজেশ্বরকে এক দিন এক পাইয়া চাপিয়া ধরিল। - - . . . “হঁ্যা রে ব্রজ, তুই আর নয়ানবোঁয়ের মুখ দেখিস না কেন?” ব্রজ হাসিয়া বলিল, “মুখখানি একে অমাবস্তার রাত্রি, তাতে মেঘ ঝড় ছাড়া নেই— দেখিতে বড় সাধ নেই।” r ব্রহ্ম। তা মরুকৃ গে, সে নয়ানবোঁ বুঝবে—তুই খাস্ নে কেন ? ব্রজ । তুমি যে রাধ ! - ব্ৰহ্ম । আমি ত চিরকালই এমনি রাধি । ব্রজ । আজ কাল হাত পেকেছে । ব্ৰহ্ম । ছধও বুঝি আমি রাধি ? সেটাও কি রান্নার দোষ ? ব্রজ । গরুগুলোর দুধ বিগড়ে গিয়াছে। ব্রহ্ম। তুই হা করে রাতদিন ভাবিস্ কি ? ব্রজ । কবে তোমায় গঙ্গায় নিয়ে যাব । ব্রহ্ম। আর তোর বড়াইয়ে কাজ নাই ! মুখে অমন অনেকে বলে ! শেষে এই নিমগাছের তলায় আমায় গঙ্গায় দিবি—তুলসী গাছটাও দেখতে পাব না ! তা তুই ভাব না ষা হয়—কিন্তু তুই আমার গঙ্গা ভেবে ভেবে এত রোগ হয়ে গেলি কেন ? - ব্রজ । ওটা কি কম ভাবনা ? ব্ৰহ্ম। কাল নাইতে গিয়ে রাণায় বসে কি, ভাই, ভাবৃছিলি ? চোখ দিয়ে জল পড়ছিল কেন ? ব্রজ। ভাবছিলাম যে, স্নান করেই তোমার রান্না খেতে হবে। সেই দুঃখে চোখে জল এসেছিল । ব্ৰহ্ম। সাগর এসে রেধে দিবে? তা হলে খেতে পারবি ত ? ব্রজ। কেন, সাগর ত রোজ রাধিত ? খেলা-ঘরে যাও নি কোনও দিন ? ধূলাচড়চড়ী, কাদার যুক্ত, ইটের ঘণ্ট—এক দিন আপনি খেয়ে দেখ না ? তার পর আমায় খেতে ব’লো । ব্ৰহ্ম। প্রফুল্ল এসে রেখে দিবে? যেমন পথে কেহ প্রদীপ লইয়া যখন চলিয়া যায়, তখন পথিপার্শ্বস্থ অন্ধকার ঘরের উপর