পাতা:ধর্ম্মসাধন.djvu/১৮৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

পরলোক ও পূৰ্ব্বজন্ম। ৯৯ ঈশ্বরের সত্তায় যেমন বিশ্বাস করেন, পরলোকের সত্তায় সেরূপ করেন না। এই জন্য র্তাহারা ঈশ্বর ও পরকালকে স্বতন্ত্র করিয়া দেখেন এবং পরকালের ব্যাপার সকল কল্পনা ও অনুমান দ্বারা চিত্রিত করিতে চান। ঈশ্বর ও পরকাল দুয়েরই বিশ্বাস যাহাদিগের উজ্জ্বল, দুইই তাহাদিগের সহজ ও স্বাভাবিক এবং এক মূল হইতে উৎপন্ন। বিশ্বাসের সীমা অতিক্রম করিয়া যাহারা অনুমানের রাজ্যে প্রবেশ করেন, তাহারা মিথ্যা ও কুসংস্কারে জড়িত হইয় পড়েন। অতএব ঈশ্বরে বিশ্বাস সাধন করিয়া তাহারই আলোকে যতদূর দেখা যায়, ততদূর সত্য বলিয়া মানা উচিত। আত্মীয়দিগের সহিত দেখা হইবেই, বিশ্বাস এ কথা নিশ্চয় বলে না । , - * & প্র। পরলোকে আত্মীয়দিগের সহিত পুনর্মিলনের জন্ত , আমাদিগের স্বাভাবিক ইচ্ছা হয় তাহা কি সফল হইবে না ? : উ। ইচ্ছা হইলেই যে তাহ পূর্ণ হইবে ইহা আমরা সত্য বলিয়া বিশ্বাস করি না, বরং যুক্তি দ্বারা খণ্ডন করিতে পারি । । প্রথমতঃ যাহা আমাদিগের ইচ্ছ, তাহার বিপরীত ঘটন} অনেক সময় আমাদিগের মঙ্গলের কারণ হয়। কুপ্রবৃত্তি এবং সাংসারিক নীচ সুখাশ হইতে যে ইচ্ছা উৎপন্ন হয়, ঈশ্বরতো পদে পদে তাহ বিফল করিয়া আমাদিগের মঙ্গল সাধন করেন। অনেক সময় ধৰ্ম্মবিষয় সম্বন্ধেও আমাদিগের যে ইচ্ছা হয়, তাহ। সম্পন্ন না হইয়া আমাদিগের উন্নতির অনেক সাহায্য করিয়া থাকে। দ্বিতীয়ত: পৃথিবীতে যাহাকে আত্মীয়তা বন্ধুতা বলি, তাহা স্থায়ী নয়। এই পৃথিবীতেই দেখা যায়, আজি যাহার সঙ্গে মিত্রতা, দুই পাঁচ বৎসর পরে তাহার সঙ্গে শক্ৰতা! স্তুে ।