পাতা:নটীর পূজা - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৪৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।

৪০

নটীর পূজা

বাসবী

 শক্তির কি কোমল রূপ নেই।

লোকেশ্বরী

 আছে, যখন সে ডোবায়। যখন সে দৃঢ় করে বাঁধে তখন না। পর্বতকে সৃষ্টিকর্তা নির্দয় পাথর দিয়ে গড়েছেন, পাঁক দিয়ে নয়। তোমাদের গুরুর কৃপায় উপর থেকে নিচে পর্যন্ত সবই কি হবে পাঁক। রাজবাড়িতে মানুষ হয়েও এই কথাটা মানতে ঘৃণা হয় না? চুপ করে রইলে যে?

বাসবী

 ভেবে দেখছি, মহারানী।

লোকেশ্বরী

 ভাববার কী আছে। চোখের সামনে দেখলে তো, রাজপুত্র একমুহূর্তে রাজা হতে ভুলে গেল। বলে গেল চরাচরকে দয়া করবার সাধনা করব। শোননি, বাসবী?

বাসবী

 শুনেছি।

লোকেশ্বরী

 তাহলে নির্দয়তা করবার গুরুতর কাজ গ্রহণ করবে কে। কেউ যদি না করে তবে বীরভোগ্যা বসুন্ধরার কী গতি। যত সব মাথা-হেঁট-কর। উপবাসজীর্ণ