পাতা:নবজাতক-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/৩৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


নবজাতক অন্তরে তোর গুপ্ত যে পাপ রাখলি চেপে তার ঢাকা আজ স্তরে স্তরে উঠল কেঁপে । যে-বিশ্বাসের আবাসখানি ধ্রুব ব’লেই সবাই জানি এক নিমেষে মিশিয়ে দিলি ধূলির সাথে, প্রাণের দারুণ অবমানন ঘটিয়ে দিলি জড়ের হাতে বিপুল প্রতাপ থাক না যতই বাহির দিকে কেবল সেটা স্পর্ধ ব’লে রয় না টিকে । দুর্বলতা কুটিল হেসে ফাটল ধরায় তলায় এসে হঠাৎ কখন দিগব্যাপিনী কীতি যত দর্পহারীর অট্টহাস্ত্যে যায় মিলিয়ে স্বপ্নমতে ॥ হে ধরণী, এই ইতিহাস সহস্রবার যুগে যুগে উদঘাটিলে সামনে সবার। জাগল দন্ত বিরাট রূপে, মজ্জায় তার চুপে চুপে २ठ>