পাতা:নবীন - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।

নবীন

১৩

সূর্য্যের আলো ওকে আপন ব’লে চেনে, দখিন হাওয়া ওকে শুধিয়ে যায় কেমন আছ। তােমার গানে আজ ওকে গৌরব দিক্‌। এরা যেন কুরুরাজের সভায় শূদ্রার সন্তান বিদুরের মতো, আসন বটে নীচে, কিন্তু সম্মান স্বয়ং ভীষ্মের চেয়ে কম নয়।

আজ দখিন বাতাসে
নাম-না-জানা কোন্ বনফুল
ফুটলো বনের ঘাসে।
ও মাের পথের সাথী পথে পথে
গোপনে যায় আসে॥
কৃষ্ণচূড়া চূড়ায় সাজে,
বকুল তােমার মালার মাঝে,
শিরীষ তোমার ভ’রবে সাজি
ফুটেছে সেই আশে।
এ মাের পথের বাঁশির সুরে সুরে
লুকিয়ে কাঁদে হাসে॥
ওরে দেখাে বা নাই দেখাে, ওরে
যাও বা না যাও ভুলে।
ওরে নাই বা দিলে দেলা, ওরে
নাই বা নিলে তুলে।
সভায় তােমার ও কেই নয়,
ওর সাথে নেই ঘরের প্রণয়,