পাতা:নব্য রাসায়নী বিদ্যা ও তাহার উৎপত্তি - প্রফুল্লচন্দ্র রায়.pdf/৬১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।
৪৯
৪৯
নব্য রাসায়নী বিদ্যা ও তাহার উৎপত্তি

পঞ্চম অধ্যায়। বিক্ষিপ্ত ; কেই ক্রমে ইউরােপে বিজ্ঞান-চর্চা। রয়াল ইনস্টিটিউশন—ইহার উৎপত্তি ও কার্যকারিতা-নব্য রসায়নী বিদ্যার এক অধ্যায়।* সেপ্টেম্বর মাসের প্রারম্ভে ( ১৯০৪ খৃঃ) এখানে আসিয়া পেীছি। তখন এখানে গ্রীষ্মের ছুটী ; বৈজ্ঞানিকগণ ইতস্তত কে সমুদ্রবক্ষে, কেহ বা অল্প পর্বতােপরি, আবার বা আমেরিকা পরিভ্রমণ করিতেছেন। কিন্তু সৌভাগ্য- কেমিকাল সােসাইটির ( রাসায়নিক সভার ) পুস্তকা গার খােলা ছিল। এই স্থানে বসানশাস্ত্রবিষয়ক নানা ভাষায় লিখিত বহু মূল্য গ্রন্থনিচয় সংগৃহীত আছে; বিশেষতঃ এমন অনেক দুষ্প্রাপ্য পুস্তক আছে, যাহা কলিকাতায় পাইকার কোন উপায় নাই। সুতরাং চাতকের ন্যায় তৃষ্ণানিবারণ করিতে লাগিলাম; এবং হিন্দুরসায়নশাস্ত্রের ইতিহাসের দ্বিতীয় খণ্ডের অনক উপকরণ সংকলন করিতে সমর্থ হইলাম। এইপ্রকারে একমাস কাটিয়া গেল। কিন্তু আমি চঞ্চলচিত্ত হইয়া পড়িলাম। যাহারা সর্বদা রাসায়নিক গবেষণা- গৃহে (laboratory) কাজ কর্মে ব্যস্ত থাকেন, তাহাদের পক্ষে হাত পা গুটাইয়া বসিয়া থাকা বড়ই কষ্টকর ;—বিশেষত এই শীতপ্রধান দেশে চুপ করিয়া বসিয়া থাকা যায় না। অক্টোবর মাসের প্রারম্ভে একজন প্রসিদ্ধ রাসায়নিক আমার সমক্ষে আসিয়া উপস্থিত হইলেন।

  • “প্রবাসী" হইতে উক্তৃত।