পাতা:নাট্য-বিকার.pdf/৩২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।
২৮
নাট্য-বিকার।

 রমেন্দ্র। (স্বগতঃ) এই বারেই সারলে!(প্রকাশ্যে) আচ্ছা-

“পাখী সব করে রব রাতি পোহাইল।
কাননে কুসুমকলি সকলি ফুটিল।
রাখাল গরুর পাল লয়ে যায় মাঠে।
শিশুগণ দেয় মন নিজ নিজ পাঠে॥”

 রাম। এযে পাঠশালের ছেলেরা পড়ে!

 রমেন্দ্র। তা আমিও তো প্রেমের পাঠশালে সবে ভৰ্ত্তি হয়েছি!

 রাম। (স্বগতঃ)কি সুরসিক প্রেমিক!

 রমেন্দ্র। তবে একটা ধেড়ে পোড়োর কবিতা বলবো?—

"রাত পোহাল,ফর্স হ’ল,ফুটুলো কত ফুল।
কাপিয়ে পাখা,নীলপতাকা,জুটলো অলিকুল॥”

 রাম। এটার ভাব খুব গম্ভীর বটে।

 রমেন্দ্র। হ্যাঁ হ্যাঁ,এযে ফার্ষ্টক্লাস পোড়োর রচনা!

 রাম। (স্বগতঃ) আমার মনটা এত চঞ্চল হ’ল কেন?বোধ হয় প্রণয়টা আরো গাঢ় হ’য়ে আসছে।(প্রকাশ্যে)দেখ,আমরা কোথাও চলে যাই চল।

 রমেন্দ্র। কেন?

 রাম। (সুরে)

“পোড়া মন টেঁকেনা এখানে ৷”

 রমেন্দ্র। (স্বগতঃ) পাঠ এগোয় দেখছি।(প্রকাশ্যে),যাবে কোথায়?

 রাম। যেথায়–(সুরে)