পাতা:নীতিকণা - নারায়ণচন্দ্র বিদ্যারত্ন.pdf/২৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটিকে বৈধকরণ করা হয়েছে। পাতাটিতে কোনো প্রকার ভুল পেলে তা ঠিক করুন বা জানান।
২৫
নীতিকণা।

মাঝে মাঝে বড় বড় সরোবর আছে,
তা’দের পাহাড় শোভে বড় বড় গাছে।
নিৰ্ম্মল সলিল রাশি করে তর তর,
মীনগণ খেলা করে তাহার ভিতর।
কোথাও নিকুঞ্জ বনে পবন বহিছে,
রাঙা রাঙা পাতা গুলি তাহাতে নড়িছে।
পাখিগণ মাঝে মাঝে করিতেছে গান,
যেন তা’রা পথিকেরে করিছে আহ্বান।
কোথাও রাখালগণ গো-পাল ছাড়িয়া,
বৃক্ষের তলায় সবে র’য়েছে বসিয়া।
কেহ গান করিতেছে কেহ বা নাচিছে,
বিশ্রাম করিছে কেহ কেহ বা খেলিছে।
গ্রাম্য-বাঁশি ল’য়ে কেহ করিতেছে গান,
শুনিয়া মোহিত হয় ভাবুকের প্রাণ।
সন্ধ্যাকালে লোহিতাদি বিবিধ বরণে,
চারি দিকে মেঘমালা শোভিছে গগনে।
খিলান ছাদের মত সুনীল আকাশ,
মিলিয়াছে ভূমিসনে ঘেরি চারি পাশ।
মন্দ মন্দ সমীরণ ভ্ৰমি উপবন,
করে বন-কুসুমের সুগন্ধ বহন।