পাতা:নীতিকণা - নারায়ণচন্দ্র বিদ্যারত্ন.pdf/৩২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটিকে বৈধকরণ করা হয়েছে। পাতাটিতে কোনো প্রকার ভুল পেলে তা ঠিক করুন বা জানান।
২৮
নীতিকণা।

উঠিয়া পড়িতে হয় পড়িয়া উঠিতে,
ইহা যেন থাকে সদা সকলের চিতে।

 


কৃষক ও পণ্ডিতের কথোপকথন

নগর হইতে দূরে চাসী এক জন,
স্বচ্ছন্দে করিত বাস হ’য়ে হৃষ্টমন।
বার্দ্ধক্যে তাহার কেশ হ’য়েছে ধবল,
দেহের বলিত মাংস করে থল থল।
চিন্তিত সে নহে কভু ধনের আশায়,
হ’য়েছে পরম জ্ঞানী বহুদৰ্শিতায়।
গ্রীষ্মকালে রৌদ্রে কিম্বা শীতকালে শীতে,
কাতর না হয় কভু মেষ চরাইতে।
মনের আনন্দে শ্রম করে অনুক্ষণ,
হিংসা দ্বেষ দুরাকাঙ্ক্ষা জানে না কেমন।
করিতে পরের মন্দ করে না বাসনা,
দেশে তার হ’ল জ্ঞান-যশের ঘোষণা।
জানিতে সে কৃষকের জ্ঞানের কারণ,
আসিয়া পণ্ডিত এক দিল দরশন।