পাতা:নীতিকণা - নারায়ণচন্দ্র বিদ্যারত্ন.pdf/৩৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটিকে বৈধকরণ করা হয়েছে। পাতাটিতে কোনো প্রকার ভুল পেলে তা ঠিক করুন বা জানান।
৩০
নীতিকণা।

আমার যে কিছু জ্ঞান পাই’ছ দেখিতে,
পাইয়াছি আমি তাহা প্রকৃতি হইতে।
কুৎসিত প্রবৃত্তি যদি হয় কভু মনে,
মানসের শান্তি দূর হয় সেই ক্ষণে।
তাহাতে মানসে হয় কতই অসুখ,
তাই তারে স্থান দিতে হ’য়েছি বিমুখ।
মধুমক্ষি পরিশ্রম করে নিরন্তর,
তাহা দেখি শ্রম শিক্ষা করে’ছি সুন্দর।
দেখিয়া সঞ্চয়পটু পিপীলিকাগণে,
সঞ্চয় করিতে শিক্ষা করে’ছি যতনে।
কুকুরের কৃতজ্ঞতা দেখিয়াছি যবে,
কৃতজ্ঞ হইতে আমি শিখিয়াছি তবে।
কুকুর বিশ্বাসী অতি করি দরশন,
বিশ্বাসী হইতে আমি হই সযতন।
পক্ষপুটে শাবকেরে করি আচ্ছাদন,
কুক্কুট যতনে শীতে করয়ে পালন।
তাহা দেখি শিখিয়াছি পালিতে সন্তান,
অন্য পাখি হ’তে হ’ল অন্যবিধ জ্ঞান।
প্রকৃতি হইতে আরো কত জ্ঞান পাই,
উপহাস ঘৃণা নিন্দা কভু করি নাই।